রাজনীতি

রাষ্ট্রযন্ত্রকে শেখ হাসিনার পেশিশক্তিতে পরিণত করেছে-রিজভী আহমেদ

  প্রতিনিধি ১১ মার্চ ২০২৪ , ৩:০৩:৪১

Spread the love

আইটি ও অনলাইনের সাথে সংশ্লিষ্ট জিয়া সাইবার ফোর্সের প্রত্যেকটি কর্মীর লেখনী প্রধানমন্ত্রীর অন্তরে আঘাত করে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব এ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, রাষ্ট্রযন্ত্রকে শেখ হাসিনার পেশিশক্তিতে পরিণত করেছে। তাদের বিরুদ্ধে কোন কিছু বললেই তার বিরুদ্ধে নেমে আসে।

জিয়া সাইবার ফোর্সের ৯ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব মন্তব্য করেন।

রিজভী আরও বলেন বাংলাদেশে এখন একটি পরিবারের জমিদারি চলছে, শেখ পরিবারের রাজতন্ত্রে পরিণত হয়েছে দেশ। গতকাল আপনারা দেখেছেন সুপ্রিম কোর্ট বারের নির্বাচন। অহংকারের মাত্রা ও ক্ষমতার দম্ভ কতটা তীব্র হতে পারে, সেখানে তা দেখা গেছে। সেখানে যুবলীগ যে তাণ্ডব চালিয়েছে তা দেশবাসী দেখেছেন। অথচ গ্রেপ্তার করা হয়েছে সম্পাদক প্রার্থী ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজলকে। কিন্তু যুথিকে কেন আটক করা হলো না? মারামারি করল তারা নিজেরা নিজেরা। আটক করা হয়েছে বিএনপির লোক।

তিনি বলেন, সুপ্রিম কোর্টের মতো জায়গায় সেখানেও তারা ভোটের অধিকার কেড়ে নিল, ফল কেড়ে নিল। ফল জালিয়াতি করে আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে। যদি সুষ্ঠুভাবে ভোট গণনা হতো বিএনপির ফুল প্যানেল বিজয়ী হতো।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন,এই ডামি সরকার জনগণের সকল অধিকার কেড়ে নিয়েছে। জনগণ যে রাষ্ট্রের প্রধানমন্ত্রী বানাবে রাষ্ট্রপতি বানাবে সে অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছে। আজকে দেশে পাঁচ কোটি শিক্ষিত যুবক বেকার সেদিকে তাদের খেয়াল নেই। কাজের সুযোগ করে দেওয়ার কোনো উদ্যোগ নেই। তারা থোড়াই কেয়ার করছে না।

উক্ত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বিএনপি চেয়ারপার্সনের বিশেষ সহকারী এ্যাডভোকেট শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস,কৃষকদলের সভাপতি হাসান জাফির তুহিন, কৃষকদলের সহ-সভাপতি আ ন ম খলিলুর রহমান (ভিপি) ইব্রাহিম।

ভার্চুয়াল শুভেচ্ছা বক্তব্য জানান, কৃষকদলের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম খান বাবুল এবং অনুষ্ঠানটির সভাপতিত্ব করেন জিয়া সাইবার ফোর্সের প্রধান সমন্বয়ক ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট অবঃ ড. মোহাম্মাদ হারুনুর রশিদ ভূঁইয়া।

আলোচনা সভার সঞ্চালনা করেন, জিয়া সাইবার ফোর্সের সিনিয়র সহ-সভাপতি কেএম হারুন অর রশিদ।
এ সময় জিয়া সাইবার ফোর্সের কেন্দ্রীয় ও বিভিন্ন জেলা,মহানগর ,উপজেলা এবং ইউনিয়ন পর্যায়ের সকল নের্তৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আরও খবর

Sponsered content