রাজনীতি

বিএনপির রোডমার্চ : নাটোরে হামলা-আগুন, ভাঙচুর

  প্রতিনিধি ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩ , ১০:২২:২৩

Spread the love

নাটোরে বিএনপি’র তারুণ্যের রোডমার্চে অংশ নিতে যাওয়া গাড়িতে অগ্নিসংযোগ, ভাঙচুর ও হামলার ঘটনা ঘটেছে। রোডমার্চে অংশগ্রহণ করতে নাটোর থেকে বগুড়া যাওয়ার পথে একটি মাইক্রোবাসে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা। এ সময় গাড়িতে নেতাকর্মীদের চাইনিজ কুড়ালসহ বিভিন্ন অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল সকাল ১০টার দিকে নাটোর-বগুড়া মহাসড়কের ডাল সড়ক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে নাটোর ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। এ সময় আহত নেতাকর্মীরা দৌড়ে বিভিন্ন দিকে পালিয়ে যায়।

এর আগে সকাল ৬টার দিকে সদরের তেবাড়িয়া হাট এলাকায় স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাকর্মীদের বহনকারী আরেকটি গাড়িতে হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক জুয়েল রানাকে বেধড়ক মারপিট করা হয়েছে। তিনি রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

 

নাটোর-ঢাকা মহাসড়কের সদরের সৈয়দ মোড় এলাকায়ও প্রায় একই সময়ে হামলার ঘটনা ঘটে। এখানে হামলায় আহত হয়েছেন, লালপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল মজিদ, স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা আনোয়ারুল ইসলাম, কাবিল উদ্দিন. যুবদল নেতা মজনু পাটোয়ারী প্রমুখ। আহত কাবিল উদ্দিনকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

 

এ ছাড়া নাটোর-বগুড়া মহাসড়কে সদর উপজেলার দিঘাপতিয়া মোড়েও গাড়ি ভাঙচুর ও হামলার ঘটনা ঘটেছে।

এ বিষয়ে নাটোর জেলা বিএনপি’র আহ্বায়ক শহিদুল ইসলাম বাচ্চু বলেন, বগুড়ায় তারুণ্যের রোড মার্চে অংশগ্রহণের জন্য লালপুর থেকে ছাত্রদল ও যুবদলের নেতাকর্মীরা গাড়ি নিয়ে যাচ্ছিল। যাত্রাপথে আওয়াামী লীগের লোকজন পথ রোধ করে গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়। তারা নেতাকর্মীদের মারপিট করে। আহত নেতাকর্মীরা প্রাণ বাঁচাতে প্রথমে স্থানীয় একটি মসজিদে আশ্রয় নিয়েছিল। পরে সেখান থেকে নিরাপদে যার যার এলাকায় গিয়ে চিকিৎসা নিচ্ছে।

বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক উপমন্ত্রী রুহুল কুদ্দুস তালকুদার দুলু বলেন, কোনো কারণ ছাড়াই ভোর থেকে জেলার বিভিন্ন স্থানে বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাকর্মীদের ওপর হামলা করা হয়েছে। হামলায় দলের ৩০-৩৫ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন করেন। ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীরা এসব হামলা করেছেন বলেও তিনি দাবি করেন।
নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এমরান সোনার বিএনপি নেতাদের এসব দাবি নাকচ করে বলেন, রোববারের এসব ঘটনার সাথে আওয়ামী লীগের কোন সর্ম্পক নেই। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা কারো ওপর কোনো হামলা বা অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটায়নি।

এ বিষয়ে নাটোর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাছিম আহম্মেদ বলেন, গাড়িতে আগুন লেগেছে এমন খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। গাড়ির আগুন নেভানো হয়েছে। তবে কারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে জানা নেই। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। ক্ষতিগ্রস্ত মাইক্রোবাসটি নাটোর থানায় আনা হয়েছে।

আরও খবর

Sponsered content