সারাদেশ

মুন্সিগঞ্জের সরকারি হাসপাতালে কিশোরী ধর্ষণ,অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা

  প্রতিনিধি ৬ জুলাই ২০২৩ , ৯:৪৭:২১

Spread the love

মুন্সিগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে এক কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। ভুক্তভোগীর অভিযোগ মুন্সিগঞ্জ পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শেখ শাকিল একটু প্রয়োজন আছে বলে ডেকে নিয়ে,ভয় দেখিয়ে হাসপাতালের ছাঁদে নিয়ে যায় ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করে।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে ভোক্তভোগীর মা বাদী হয়ে,মুন্সিগঞ্জ সদর থানায় অভিযুক্তের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে। এর আগে (৪জুলাই) মঙ্গলবার দিবাগত সাড়ে ১২ টার দিকে হাসপাতালে পুরাতন ভবনের ছাদে এঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত শাকিল মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের মো: হাবিবুরের ছেলে। তারা শহরের ২নং ওয়ার্ডের একটি আবাসিক ভবনের ভাড়াটিয়া বলে জানিয়েছে পুলিশ। মামলার এজহারসূত্র ও ভোক্তভোগী কিশোরী জানান, মা হাসপাতালের তৃতীয় শ্রেনীর কর্মচারী হওয়ায় প্রায় মায়ের জন্য খাবার নিয়ে হাসপাতালে যাওয়া আসা ছিলো তার।

নির্জন বাড়ি হওয়ায় নিরাপত্তার কথা ভেবে প্রায় রাতে মায়ের সাথে হাসপাতালে থাকা হতো তার। মঙ্গলবার রাতে মায়ের জন্য হাসপাতালে অবস্থান করছিলো সে। একই সময় ৪-৫জন সহযোগিকে নিয়ে হাসপাতালে অবস্থান করছিলো স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতা শাকিল।

 

পরে রাত সাড়ে ১২টার দিকে হাসপাতালে লোকজন কমে আসলে প্রয়োজনের কথা বলে ওই কিশোরীকে ডেকে সিড়ির সামনে নিয়ে প্রেমের প্রস্তাব দেয় শাকিল। এতে অস্বীকৃতি জানালে একপর্যায় ভয়ভীতি দেখিয়ে তাকে টেনে হাসপাতালের ছাঁদে নিয়ে মুখ চেপে ধরে রেখে ধর্ষণ করে। পরে বিষয়টি কাউকে জানালে হত্যার হুমকি দিয়ে চলে যায়। এরপর অসুস্থ হয়ে পড়লে হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নেয় সে।

এদিকে এরপর থেকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি ও আপসের চেষ্টা চালাচ্ছিলো অভিযুক্তরা। এ বিষয়ে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলেও অভিযুক্ত শাকিলকে পাওয়া যায়নি।

তবে মুন্সিগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি তারিকুজ্জামান জানান, কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনায় শাকিল নামের একজনকে আসামী করে মামলা দায়ের হয়েছে। অভিযুক্তকে গ্রেফতারে চেষ্টা চলাচ্ছে পুলিশ।

 

আরও খবর

Sponsered content