সারাদেশ

জামালপুরে স্বামীকে গরম পানি ঢেলে স্ত্রীর হত্যা চেষ্টা

  প্রতিনিধি ৫ জুলাই ২০২৩ , ১০:৩৯:৩৯

Spread the love

জেলা প্রতিনিধি-জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে লবণ ও শুকনো মরিচের গুঁড়ো মেশানো গরম পানি ঢেলে ঘুমন্ত স্বামীকে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে স্ত্রীর বিরুদ্ধে। আহত স্বামী রুবেল মিয়াকে (৩৮) মুমূর্ষু অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার মহাদান ইউনিয়নের সেংগুয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত রুবেল ওইগ্রামের আমজাদ ভুঁইঞা ওরফে আঞ্জুর ছেলে। তিনি স্থানীয় সিউর সাকসেস কোচিং সেন্টারের পরিচালক।

হাসপাতাল ও স্থানীয় সূত্র জানায়, ১৫ বছর আগে রুবেল মিয়ার প্রথম স্ত্রীর সাথে বিচ্ছেদ হওয়ার পর পার্শ্ববর্তী টাঙ্গাইলের ধনবাড়ি উপজেলার বীরতারা ইউনিয়নের কাঁঠালিয়াবাড়ি গ্রামের নূরুল ইসলামের মেয়ে নাসিমা বেগমকে বিয়ে করেন। পারিবারিক বিষয় নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া হতো। এরইমধ্যে তাদের দুটি কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। কিন্তু উভয়ের মধ্যে দাম্পত্য কলহ বাড়তেই থাকে। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে একবার তালাক হয় এবং রুবেল-নাসিমা পুনরায় বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন।

এদিকে রুবেল মিয়া দুইমাস আগে আবারও অন্য একটি মেয়েকে বিয়ে করেন। এর জের ধরে কয়েকদিন ধরে স্ত্রী নাসিমা বেগমের সাথে তার ঝগড়া চলছিল।

সোমবার সন্ধ্যার পর তৃতীয় স্ত্রীর কাছে রাত কাটানোরা পর বাড়িতে এসে ঘুমিয়ে পড়েন রুবেল।

 

এদিকে পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী স্ত্রী নাসিমা পানিতে লবণ ও শুকনো মরিচের গুঁড়া মিশিয়ে গরম করতে থাকে । তীব্র গরম অবস্থায় ওই পানি ঘুমন্ত স্বামী রুবেল মিয়ার শরীরে ঢেলে দেন। এতে তিনি চিৎকার শুরু করলে বাড়ির লোকজন তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মেহেদী হাসান জানান, ফুটন্ত পানির তাপে রুবেলের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ৪০-৪৫ ভাগ ঝলসে গেছে। তার অবস্থার অবনতি দেখে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে সরিষাবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ মহব্বত কবীর জানান, সংবাদ পেয়ে পুলিশ তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে ।

 

আরও খবর

Sponsered content