খেলাধূলা

ভারতে বিশ্বকাপ, নানা দিক ‘খতিয়ে দেখছে’ পাকিস্তান

  প্রতিনিধি ২৩ জুন ২০২৩ , ৯:৩৫:১৪

Spread the love

চলতি বছরের অক্টোবর-নভেম্বরে ভারতে অনুষ্ঠিত হবে এবারের ওয়ানডে বিশ্বকাপ। সেখানে পাকিস্তান অংশ নিবে কিনা সেটা নিয়ে ক্রিকেট বিশ্বে আলোচনা চলছে অনেক দিন ধরেই। সূচী অনুযায়ী এবারের এশিয়া কাপ হওয়ার কথা ছিল পাকিস্তান। ভারত পাকিস্তানে যেতে অস্বীকৃতি জানানোয় এশিয়া কাপের মডেলই বদলে গেছে। ভারত পাকিস্তান না যেতে চাওয়ায় ওয়ানডে বিশ্বকাপ বর্জনের হুমকি দেয় পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। এরপরই বিশ্বকাপে পাকিস্তানের অংশগ্রহণ নিয়ে জটিলতা শুরু হয়।

গত সপ্তাহে পিসিবির সদ্য সাবেক চেয়ারম্যান নাজাম শেঠি জানান, পাকিস্তান সরকার ঠিক করবে ভারতের মাটিতে বিশ্বকাপে দেশটির ক্রিকেট দল অংশ নেবে কিনা। এবার পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানালো, ভারতে ওয়ানডে বিশ্বকাপে পাকিস্তানের অংশ নেওয়ার সম্ভাবনার সব দিক বিবেচনা করে দেখা হচ্ছে।

পাকিস্তানের ভারতের বিশ্বকাপ খেলা নিয়ে এবার সরাসরি কথা বলেছেন পাকিস্তান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মুমতাজ জাহারা বালুচ। সংবাদ মাধ্যমে তিনি বলেন, ‘আগামী ৪ জুলাই সাংহাই কো-অপারেশন বৈঠকে অংশ নিতে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে দাওয়াত পেয়েছেন আমাদের প্রধানমন্ত্রী। পাকিস্তান এই সম্মেলনে অংশ নেবে।’

তিনি বলেন, ক্রিকেট নিয়ে বলতে পারি, পাকিস্তান মনে করে খেলাধুলার সঙ্গে রাজনীতি জড়ানো ঠিক নয়। ভারতের পাকিস্তানে খেলতে না চাওয়ার সিদ্ধান্ত হতাশাজনক।

 

পাকিস্তানের বিশ্বকাপে খেলা না–খেলার বিষয়ে সব দিক বিবেচনা করে দেখা হচ্ছে এবং এর মধ্যে পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের নিরাপত্তার বিষয়টিও আছে। আমরা সময়মতো পিসিবিকে নিজেদের মতামত জানিয়ে দেব।’
এর আগে সম্প্রতি বিশ্বকাপের আয়োজক হিসেবে খসড়া সূচি তৈরি করে আইসিসির কাছে পাঠিয়েছে বিসিসিআই। এরপর সেটি অংশগ্রহণকারী দেশগুলোর বোর্ডের কাছে পাঠানো হয় মতামতের জন্য। সব দেশ সম্মতি দিলে তখন আইসিসি চূড়ান্তভাবে সূচি প্রকাশ করতে পারে। কিন্তু এবার পাকিস্তান কোনো সিদ্ধান্ত না দেওয়ায় এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে সূচি প্রকাশ করতে পারেনি আইসিসি।

এ বিষয়ে আইসিসিকে একটি চিঠিও দিয়েছে পিসিবি। সেই চিঠির ব্যাপারে নাজাম শেঠি বলেছিলেন ‘আইসিসিকে লেখা চিঠিতে বলেছি, (বিশ্বকাপের সূচি নিয়ে) আমরা সম্মতি কিংবা অসম্মতি কিছুই দিতে পারছি না। এটা আমাদের সরকারের সিদ্ধান্ত, ঠিক যেভাবে ভারতের ক্ষেত্রেও তাদের সরকার ঠিক করে দেয়। তাই আহমেদাবাদে খেলব কি না, সে প্রশ্ন আমাদের করে লাভ নেই। সময় হলে প্রথমে আমরা (পিসিবি) সিদ্ধান্ত নেব, (বিশ্বকাপে খেলতে) যাচ্ছি কি না, তারপর সরকার সিদ্ধান্ত নেবে আমরা কোথায় খেলতে যাচ্ছি—এ দুটি শর্তের ওপর আমাদের বিশ্বকাপ–সিদ্ধান্ত নির্ভর করছে।’

আরও খবর

Sponsered content