রাজনীতি

তরুণ সমাজ-যুব সমাজ নষ্টের মূলে ছিলেন জিয়াউর রহমান-নিখিল

  প্রতিনিধি ১৫ জুন ২০২৩ , ১১:৪৮:২০

Spread the love

চট্টগ্রামে ‘তারুণ্যের সমাবেশে’র নামে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মুক্তিযুদ্ধের ম্যুরাল, ছবি ভাঙচুরের প্রতিবাদে আওয়ামী যুবলীগের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৫ জুন) বিকেলে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল।

মাইনুল হোসেন খান নিখিল বলেন, বাংলাদেশের তরুণ সমাজ-যুব সমাজ নষ্টের মূলে ছিলেন জিয়াউর রহমান। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার পর অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করে তরুণ সমাজ ও যুব সমাজকে অবৈধ টাকা দিয়ে, অবৈধ অস্ত্র দিয়ে, মাদক-হেরোইন দিয়ে ধ্বংস করেছিলেন জিয়াউর রহমান। তারই প্রেতাত্মা এই যুবদল-ছাত্রদল-স্বেচ্ছাসেবক দলের খুনি-সন্ত্রাসী বাহিনী।

তিনি আরও বলেন, জিয়াউর রহমান যেমন তরুণ সমাজকে, যুব সমাজকে ধ্বংস করেছিলেন ঠিক একইভাবে খুনি তারেক রহমান আবারও যুব সমাজকে ধ্বংস করছে। তারুণ্যের সমাবেশের নামে খুনি, সন্ত্রাসী, চাঁদবাজ, মাদক ব্যবসায়ী, চোর, ডাকাত, গাঁজাখোর দিয়ে সমাবেশ করছে। যার কারণে বিকারগ্রস্ত ওই যুবদল-ছাত্রদল সন্ত্রাসীদের কাছে দেশের স্বাধীনতার কোনো মূল্য নাই, মুক্তিযুদ্ধের কোন মূল্য নাই, যিনি এদেশকে স্বাধীন করলেন আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি তাদের কোন শ্রদ্ধাবোধ নাই।

এসময় যারা ভাঙচুর করেছে, অবিলম্বে তাদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

 

তিনি যুবলীগের নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, বিএনপি-জামায়াত একটি সন্ত্রাসী সংগঠন। এরা কখনও ভালো হবে না। ওরা চট্টগ্রামে ভাঙচুর করেছে। ওরা অন্যান্য বিভাগেও একই তাণ্ডব চালাবে। যদি এসব খুনি সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার করা না হয়, তাহলে বিএনপি-জামায়াত যেখানেই কর্মসূচি দেবে আমরা যুবলীগ সেখানেই কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবো। যুবদল-ছাত্রদলের সন্ত্রাসীরা যেখানে ভাঙচুর আর সাধারণ মানুষের জানমালের ক্ষতি করার চেষ্টা করবে আমরা সেখানে রাজপথেই তাদের কঠোরভাবে প্রতিহত করবো।

এসময় আরও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য রফিকুল ইসলাম, হাবিবুর রহমান পবন, ড. সাজ্জাদ হায়দার লিটন, ইঞ্জিনিয়ার মৃণাল কান্তি জোদ্দার, তাজউদ্দিন আহমেদ, আনোয়ার হোসেন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বিশ্বাস মুতিউর রহমান বাদশা, মুহাম্মদ বদিউল আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুর রহমান সোহাগ, জহির উদ্দিন খসরু, আবু মুনির শহিদুল হক চৌধুরী রাসেল, মশিউর রহমান চপল, অ্যাডভোকেট ড. শামীম আল সাইফুল সোহাগ প্রমুখ।

 

আরও খবর

Sponsered content